Happy Home & Healthcare Prokashoni

রোগ প্রতিরোধে চা

আইভি ওয়াহিদ || 2021-04-17 11:51:29

চায়ের উপকারিতা শুধু সকালের জড়তা কাটানোতেই সীমাবদ্ধ নয়। চায়ে আছে নানামুখী গুণ যা আপনাকে সুন্দর ও সুস্থ রাখতে সহায়ক।চা খেলে গায়ের রঙ পরির্বতন বা কালো হয় এমন ধারণা সম্পূর্ণ ভুল। আবার কেউ কেউ মনে করেন চা খেলে ত্বক খসখসে হয়ে যায়। অনেকে আবার ‍বিশ্বাস করেন, চা খেলে লিভার ক্ষতিগ্রস্ত হয়, চামড়ায় দাগ পড়ে এর কোনোটিই ঠিক নয়। তবে মাত্রাতিরিক্ত খেলে বিরুপ প্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে। চায়ের রয়েছে ফ্ল্যাভোনয়েড। যার মধ্যে রয়েছে চমৎকার অ্যান্টি- অক্সিডেন্টস। এই অ্যান্টি- অক্সিডেন্টস কালো এবং সবুজ চা দুটোতেই পাওয়া যায় প্রচুর পরিমাণে। খাবারের সাথে বেশী পরিমাণে ফ্ল্যাভোনয়েড শরীরে হৃদযন্ত্র অনেক বেশী সক্রিয় থাকে। গবেষণায় দেখা গেছে, ফলমূল বা শাক-সবজিতে যে পরিমাণ অ্যান্টি –অক্সিডেন্টস পাওয়া যায় তার চেয়ে বেশী পাওয়া যায় চায়ে। চায়ে আছে কিছু ভিটামিন, খনিজ পদার্থ ও ১২ ‍টিরও বেশী অ্যামাইনো এসিড। চায়ে আছে ভিটামিন সি ( অ্যাসকরবিক এসিড ) যা শরীরের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। তাছাড়া চায়ে ভিটামিন বি, ফলিক এসিড প্রভূতি। আমাদের শরীরে দিনে ২ থেকে ৫ মিলিগ্রাম ম্যাঙ্গানিজের ৪৫ শতাংশ পূরণ হয়। শরীরে স্বাভাবিক কাজ-কর্মের জন্য প্রয়োজন পটাশিয়াম আলস্য কাটায়, ক্লান্তি ,অবসাদ প্রভূতিকে কাটিয়ে শরীরকে চাঙ্গা করে রাখে। প্রতিদিন ৪-৫ কাপ গ্রিন লিফের লিকার শরীরের প্রয়োজনীয় পটাশিয়ামের  তিন-চতুর্থাংশ পূরণ করে। চায়ে সামান্য পরিমাণে জিষ্ক আছে। যা শরীরের জন্য অত্যন্ত কার্যকর। অনেকে চা পাতা দিয়ে একবার চা বানানো হয়ে গেলে তা ‍দ্বিতীয়বার পুনরায় জ্বাল দিয়ে চা তৈরী করেন, এটা মোটেই করবেন না কখনো। কেনো না এটি স্বাস্থ্যোর জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর।

 

Designed & Developed by TechSolutions BD