Happy Home & Healthcare Prokashoni

টক দইয়ের উপকারিতা

আইভি খান ওয়াহিদ || 2021-04-17 02:57:47

অনেকে দুধ খেতে চান না, অথচ দই বেশ মজা করেই খান। বিশেষ করে মিষ্টি দই বেশ জনপ্রিয়,কিন্তু টক দই ? স্বাদের দিক থেকে একটু কম হলেও টক দই আমাদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় বেশ র্কাযকর। যে কোনো অস্বাস্থ্যকর স্ন্যাকসের  পরর্বিতে সকালে নাস্তার পর এবংবিকেলের নাস্তায় টক দই খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য ভালো। দেহের অনেক রোগ প্রতিরোধে টক দই অনন্য।

টক দই আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য কতোটা উপকারী-

  • টক দইয়ে থাকা এনজাইম হজমে সহায়তা করে ও বদহজম প্রতরিোধ করে।
  • টক দইয়ে ফ্যাট কম থাক, এতে করে রক্তের ক্ষতিকর কোলস্টেরেল ‘ এলডিএল’ কমাতে সাহায্য কর।   রক্ত পরশিোধনের অন্যতম সহায়ক টক দই।
  • টক দই কোষ্ঠকাঠন্যি দূর করে এবং কোলন ক্যান্সাররে ঝুঁকি কমায়।   নিয়মিত টক দই খলেে উচ্চরক্তচাপরে সমস্যা নয়িন্ত্রণ থাকে।
  • টক দইয়ের ক্যালসয়িাম  ও ভটিামনি ‘ ডি ’ আমাদরে হাড় ও দাঁতের গঠন মজবুত করে হাড় ও দাঁতের সমস্যাজনতি রোগ প্রতরিোধেও টক দই সাহায্য করে।
  • টক দই দেহে ক্ষতকির টক্সিন জমতে বাধা দেয়। অন্ত্রনালী পরিষ্কার রেখে শরীরকে সুস্থ রাখে ও অল্প বয়সে বুড়িয়ে যাওয়া রোধ করে। শরীরে টক্সিন কমার কারণে ত্বকরে সৌর্ন্দযও বৃদ্ধি পায়।
  • টক দইয়ের আমিষ দুধের চেয়ে সহজে ও কম বয়সে হজম হয়ে যায়। যাদরে দুধরে হজমরে সমস্যা র্অথাৎ যাদরে ল্যাক্টোজেন ইন্টালারন্সের সমস্যা রয়েছে তারা দুধের পরর্বিতে অনায়াসে টক দই খেতে পারেন।
  • নিয়মিত টক দই খেলে ডায়াবেটিস ও হৃদপিন্ডের সমস্যা নিয়ন্ত্রণে রাখা যায় খুব সহজেই।
  • যারা ওজন কমাতে চান তারানিজেদের ডায়েটে যোগ করে নিতে পারেন কম ফ্যাটযুক্ত এই টক দই। দ্রুত ওজন কমাতে এর জুড়ি নেই।

Designed & Developed by TechSolutions BD