Happy Home & Healthcare Prokashoni

             ক্যান্সারের লক্ষণ

আইভি খান ওয়াহিদ || 2021-04-16 18:13:59

                                           

ক্যান্সার একটি মরণব্যাধি। সাধারণত জনগণের মাঝে ক্যান্সার নিয়ে নানা বিভ্রান্তি আছে। বর্তমানে ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগির সংখ্যা বেড়েছে অনেক। এবং প্রতিদিনই আশষ্কাজনকহারে বেড়ে চলেছে এ সংখ্যা। ধুমপান, সূর্যের রশ্মি, রাসায়নিক পদার্থ, বারতি ওজনসহ আরও নানা কারণে ক্যান্সারে আক্রান্ত হতে পারেন যে কোনো মানুষ। জরিপে দেখা যায় সাধারণত প্রতি ৪ জন ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগীর মধ্যে মারা যান ১ জন ব্যক্তি। কিন্তু চিকিৎসার অভাব ও অবহেলার কারণে এই সংখ্যা বেড়ে দাড়াঁয় ৩ জন পর্যন্ত ।

অনেক সময় ক্যান্সারের লক্ষণগুলো ভালোভাবে না জানার কারণে শরীরে ছড়িয়ে পরে ক্যান্সার। যা বেশি মাত্রায় ছড়ানোর পর চিকিৎসা করে ভালো করা সম্ভব হয় না। ক্যান্সারের লক্ষণগুলোকে ভালোভাবে জানলে প্রাথমিক পর্যায়ে চিকিৎসার মাধ্যমে ক্যান্সারকে নির্মূল করা সম্ভব হয়। তাই আমাদের জানতে হবে ক্যান্সারের লক্ষণগুলোকে ।

অতিরিক্ত মাত্রায় ওজন কমে যাওয়াঃ এতে খুব খুশি হওয়ার কিছুই নেই। এটা হতে পারে ক্যান্সারের লক্ষণ। ডায়েটিং কিংবা খাদ্যাভ্যাস পরিবর্তন করে ওজন কমতে থাকলে  সমস্যা নেই। সমস্যা হলো কোন প্রকার ডায়েটিং কিংবা খাদ্যাভ্যাস পরিবর্তন না করে ওজন কমতে থাকলে। এবং বেশি মাত্রায় কমতে থাকলে । অবশ্যই ডাক্তারের কাছে চেক-আপের জন্য যাওয়া দরকার ।

ক্রমাগত জ্বর এবং কাশি হওয়াঃ ঠান্ডা কিংবা ঋতু পরিবর্তনের সময় একটু আধটু জ্বর বা কাশি হওয়াকে আমরা কেউই পাত্তা দিই না । কিন্তু যদি টানা জ্বর উঠা এবং কাশি থাকা শুরু করে তবে অবশ্যই ডাক্তারের কাছে যাওয়া প্রয়োজন। কারণ ক্রমাগত জ্বর ওঠা এবং কাশি হতে পারে বিভিন্ন ক্যান্সার যেমন লিম্ফোমা, লিউরকামিয়ার লক্ষণ। ক্রমাগত জ্বর এবং কাশি থাকা অবহেলা করবেন না কখনোই।

অতিরিক্ত এবং প্র্রায়ই মাথাব্যথা এবং মেরুদন্ড ব্যথা হওয়াঃ মাইগ্রেনের কারণে অনেকেই মাথাব্যথায় ভুগে থাকেন। ঠান্ডা লেগেও অনেকের মাথাব্যথা হয় । কিন্তু একটানা অতিরিক্ত মাথাব্যথা হওয়া ভালো লক্ষণ নয়। ডাক্তারের কাছে পরামর্শের জন্য চেক-আপ করান। কারণ অতিরিক্ত মাথাব্যথা হতে পারে ‘ব্রেইন টিউমারে লক্ষণ। আবার একটানা বসে থাকলে পিঠ বা মেরুদন্ড ব্যথা হয় বলে আমরা মেরুদন্ড ব্যথাকে পাত্তা দেইনা। কিন্তু এটিও হতে পারে ক্যান্সারের লক্ষণ। সুতরাং অবহেলা না করে চেক-আপ করান ।

চামড়ার নিচে ফোলা বা দলা ভাবঃ ক্যান্সারের প্রথম এবং প্রধান লক্ষণ হচ্ছে শরীরের চামড়ার নিচে গুটিগুটি হয়ে ফুলে ওঠা বা দলা পাকানো গোটাম মতো অনুভব করা । এই গুটিগুলো দেখা দিলে তা ক্যান্সারের লক্ষণ হতে পারে । শরীরের কোথাও আচমকা গ্ল্যান্ড ফুলে যাওয়া লিম্ফ্যাটিক সিস্টেম পরিবর্তনের ইঙ্গিত দেয়। এটা ক্যান্সারের পূর্বলক্ষণ হতেও পারে । যেমন বগলের নিচে গ্ল্যান্ড দেখা দিলে ব্রেস্ট ক্যান্সার , কুঁচকি বা ঘাড়ে এরকমটা হলে তা লিউকেমিয়াসহ অন্যান্য ক্যান্সার হওয়ার লক্ষণ হতে পারে ।

অস্বাভাবিক রক্তপাতঃ কফ বা কাশির সাথে রক্ত যাওয়া ফুসফুসের ক্যান্সারের লক্ষণ হিসেবে ধরা হয়। এ ছাড়া প্রস্রাবের সাথে রক্ত পড়া হতে পারে বলাডার ক্যান্সারের লক্ষণ। রেক্টাম দিয়ে বা মলের সংঙ্গে রক্তপাত সাধারণত কোলন ক্যান্সারের লক্ষণ। তাই এরকম কিছু হলে আগে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন । স্তন থেকে রক্ত পরা স্তন  ক্যান্সারের লক্ষণ । কোনো আঘাত ছাড়াই শরীরে কালশিরা বা কালশিটে দাগ দেখা দেয়া লিউকেমিয়া-কেই মনে করায়। সেই সংঙ্গে মুখে , ঘাড়ে, বুকে লাল স্পট দেখা দিলে খুব সহজভাবে নেবেন না ব্যাপারটাকে ।

Designed & Developed by TechSolutions BD