Happy Home & Healthcare Prokashoni

জ্বরের থেকে মুক্তি দেবে ১২ টি খাবার

Amar ShasthoBD || 2021-04-15 11:36:39

জ্বর প্রতিরোধ করা খুব  দরকার। জেনে নেওয়া যাক যেসব খাবার খেলে আপনি এবং আপনার পরিবার জ্বর থেকে মুক্তি পেতে পারেন।

১. কালো জিরা ভর্তা: সকল রোগের ঔষধি হচ্ছে কালো জিরা। তাই  নিয়মিত কালো জিরার ভর্তা খাওয়ার অভ্যাস করুন। কারণ কালো জিরা সকল রোগ থেকে মুক্তি দিতে সাহায্য করে।

২. আদা: চা অথবা গরম পানিতে লেবুর সঙ্গে মিশিয়ে আদা কুচি খেতে পারেন। এটি ব্যাকটেরিয়াজনিত ইনফেকশনের সঙ্গে লড়াই করে।

৩. তুলসি পাতা: তুলসি পাতা হচ্ছে একটি ঔষধি পাতা। ১ চা চামচ জিরা এবং ৪-৬টা তুলসি পাতা এক গ্লাস পানিতে নিয়ে সিদ্ধ করে প্রতিদিন দুইবার ১চা-চামচ করে খেলে জ্বর দ্রুত কমবে।

৪. মৌসুমি ফলমূল: ফল-এ রয়েছে প্রচুর পরিমানে পুস্টি। মৌসুমি  ফলে থাকে প্রচুর পরিমানে অ্যান্টি -অক্সিডেন্ট, যেগুলো জ্বর থেকে দ্রুত সারিয়ে তোলে।

৫. চালের সুজি: জ্বরের সময় আরেকটি  উপকারী খাবার হল, চালের সুজি সঙ্গে সামান্য আদাকুচি ও সিদ্ধ করা সবজি।

৬. কিশমিশ: কিশমিশ হচ্ছে একটি মজাদার খাবার। তবে জ্বরে আক্রান্ত রোগীর জন্য কিশমিশ একটি উপকারী খাবার। কিশমিশে আছে ভিটামিন-সি ও অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, যা দ্রুত সুস্থ হতে সাহায্য করে।

৭. শিং-মাগুর মাছের ঝোল: জ্বর থেকে দ্রুত মুক্তি পেতে এবং আগের শক্তি পুনরায় ফিরে পেতে দেশি শিং ও মাগুর মাছের ঝোল একটি আর্দশ খাবার।

৮. গোলমরিচ ও লবঙ্গ: নরম ভাত, খিচুড়ি অথবা আলু সিদ্ধর সঙ্গে একটু গোলমরিচ ও লবঙ্গ মিশিয়ে খেলে জ্বরে উপকার হবে।

৯. ফ্লু প্রতিরোধী জিংক খাবার: রোগ প্রতিরোধী ব্যবস্থাকে সজীব রাখতে জিংক অপরিহার্য। জিংকের অসংখ্য কাজের  মধ্যে অন্যতম হল, অস্থিমজ্জার জীবাণু বিধ্বংসী কোষগুলোর  উৎপাদন তদারকি করা। জিংকের অন্যতম উৎস হল বিভিন্ন রকম কপি, মটরশুটি, তিল, তিসি, শস্যদানা,গরুর মাংস ও সামুদ্রিক মাছ।

১০. রসুন: সকল রোগের ঔষধ হচ্ছে রসুন। রসুন জ্বর ও ঠান্ডা প্রতিরোধী উপাদান হিসেবে খুবই পরিচিত। রসুন বিশেষ ধরনের এনজাইমের মাত্রা বৃদ্ধি করে। রসুন যকৃতের রক্ত থেকে বিষাক্ত দ্রব্য শোষণ করতে সাহায্য করে। কাঁচা রসুন  আপনাকে দিতে পারে বেশি উপকার।

১১. মধু: মধু একটি প্রাকৃতিক উপাদান। ঠান্ডা ও জ্বর থেকে রক্ষা পাওয়ার কার্যকরী পথ্য হল মধু, এটি ব্যাকটেরিয়া ও ভাইরাস প্রতিরোধ করে। প্রতিরাতে ঘুমানোর আগে মধু সেবন ভালো ফল দেয়। প্রতিরাতে এক কাপ গরম দুধের সঙ্গে মিশিয়ে পান করলে বেশি উপকার পাবেন।

১২.গাজর: গাজরে আছে প্রচুর পরিমাণ বিটা ক্যারেটিন। গাজরের স্যুপ রোগ প্রতিরোধে দারুন কাজ করে। গাজর ঠান্ডা ও ফ্লুর বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে। এছাড়া ঠান্ডাজনিত ইনফেকশন থেকে রক্ষা করে।

Designed & Developed by TechSolutions BD