Happy Home & Healthcare Prokashoni

ফুসফুসে করোনা সংক্রমন ঠেকাবে নতুন ইনহেলার

Amar ShasthoBD || 2021-04-14 14:59:43

মহামারী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয় ফুসফুস। এই ভাইরাস দ্রুত ফুসফুসে সংক্রমণের কারনে বাড়তে থাকে শ্বাসকষ্ট। 

এ সময় সংক্রমন নিয়ন্ত্রনে না এলে শরীরে অক্সিজেনের অভাবে মৃত্যু হয় বেশিরভাগ করোনা রোগীর। 

ফুসফুসে করোনা সংক্রমন থেকে সহজেই রোগীকে বাচাঁতে নতুন একটি ইনহেলার তৈরি করেছেন একদল গবেষক। বিশেষ এই ওষুধটির নাম এসএনজি ১০০১ (SNG 1001)

বৃটেনের সাউদাম্পটন বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক করোনাভাইরাসের প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য বিশেষ ধরনের এই ইনহেলার তৈরি করছেন। ব্রিটিশ গবেষকদের দাবি, এই ইনহেলার ব্যাবহার করলে ভাইরাস সংক্রমিত ফুসফুস সহজেই সেরে উঠবে। 

সাউদাম্পটন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞরা জানান, তাদের তৈরি এই ওষুধে রয়েছে ইন্টারফেরাম ভিটা নামের এক বিশেষ ধরনের প্রোটিন। এই প্রোটিন ভাইরাসের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে। 

তারা জানান, কেন্দ্রিয় স্নায়ুতন্ত্রের চিকিৎসায় এই ধরনের প্রোটিনের প্রয়োগ করা হয়। আর করোনার প্রাথমিক চিকিৎসার ক্ষেত্রেও এটি কার্যকর বলে প্রমানিত হয়েছে। 

ইতিমধ্যেই ১২০ জন করোনা রোগীর উপর এই ইনহেলার পরীক্ষামূলক ভাবে প্রয়োগ করা হয়েছে। এসব রোগির বেশির ভাগই ৫০ বছরের বেশি। 

গবেষকদের দাবি, এই ওষুধ প্রয়োগে ভাইরাসের সংক্রমন ও উপসর্গ আস্তে আস্তে কমতে দেখেছেন তারা। তাদের মতে, করোনা রোগীর শারীরিক সমস্যা ও উপসর্গগুলো বিবেচনা করে ৭২ ঘন্টার মধ্যে এই ইনহেলারের প্রয়োগ করা যেতে পারে। আক্রান্তের শরীরে অক্সিজেনের পরিমান এবং তাপমাত্রা বিবেচনা করে এর ডোজ নির্ধারন করা হবে। 

আগস্ট ২০২০ এর মধ্যেই এই ইনহেলারের পরীক্ষামূলক প্রয়োগের সম্পুর্ণ ফলাফল হাতে পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছেন সাউদাম্পটন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞরা। এরপর পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।

Designed & Developed by TechSolutions BD