Happy Home & Healthcare Prokashoni

ইসুবগুলের ভুষি

আইভি খান ওয়াহিদ || 2021-04-16 22:20:45


ইসুবগুলের ভুষি মানবদেহের জন্য অনেক উপকারী। ইসুবগুলের ভুষি যে সব রোগে সাহায্য করে তার মধ্যে আছে: কোষ্ঠকাঠিন্য দুরীকরণে, ডায়রিয়া প্রতিরোধে, অ্যাসিডিটি প্রতিরোধে, ওজন কমাতে, হজমক্রিয়ার উন্নতিতে, হৃদস্বাস্থ্যের সুস্থতায়, পাইলস প্রতিরোধে, ডায়াবেটিস প্রতিরোধে ইত্যাদি।
ইসুবগুল বা psyllium husk বাংলাদেশ, ভারতসহ অনেকদেশেই এটি বেশ পরিচিত। এটি অভ্যন্তরীণ পাচনতন্ত্রের সমস্যার ঘরোয়া চিকিৎসা ও প্রতিকারের জন্য বেশ উপকারী। তবে এই সাদা ভুষিটির উপকারিতা শুধু হজমতন্ত্রের মাঝেই সীমিত নয়। এর অনেক ধরনের উপকারিতা রয়েছে:-

  •    কোষ্ঠকাঠিন্য দুরীকরণে

ইসুবগুলে থাকে কিছু অদ্রবণীয় ও দ্রবণীয় খাদ্য আঁশের চমৎকার সংমিশ্রণ যা কোষ্ঠকাঠিন্যের জন্য খুব ভালো ঘরোয়া উপায় হিসেবে কাজ করে। এটি পাকস্থলীতে গিয়ে ফুলে ভেতরের সব বর্জ্য পদার্থ বাইরে বের করে দিতে সাহায্য করে। প্রাকৃতিকভাবে জলগ্রাহী হওয়ার কারণে পরিপাকতন্ত্র থেকে পানি গ্রহণ করে মলের ঘনত্বকে বাড়িয়ে দিয়ে কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে সাহায্য করে। কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে ২ চামচ ইসুবগুল এক গ্লাস কুসুমগরম দুধের সাথে মিশিয়ে প্রতিদিন ঘুমের আগে পান করে নিন।

  •   অ্যাসিডিটি প্রতিরোধে

 বেশিরভাগ মানুষেরই অ্যাসিডিটির সমস্যা থাকে আর ইসুবগুল হতে পারে এই অবস্থার ঘরোয়া প্রতিকার। ইসুবগুল খেলে তা পাকস্থলীর ভেতরের দেয়ালে একটা প্রতিরক্ষামূলক স্তর তৈরি করে যা অ্যাসিডিটির বার্ন থেকে পাকস্থলীকে রক্ষা করে। এছাড়া এটি সঠিক হজমের জন্য এবং পাকস্থলীর বিভিন্ন এসিড নিঃসরণে সাহায্য করে। প্রতিবার খাবার পর ২চামচ ইসুবগুল আধা গ্লাস দুধে মিশিয়ে পান করুন। এটি পাকস্থলীতে অত্যাধিক এসিড উৎপাদন কমাতে সাহায্য করে ও অ্যাসিডিটির মাত্রা কমায়।

  •     হজমক্রিয়ার উন্নতিতে

দ্রবণীয় ও অদ্রবণীয় খাদ্যআঁশে ভরপুর ইসুবগুল হজমপ্রক্রিয়াকে সঠিক অবস্থায় রাখতে সাহায্য করে। এটি শুধু পাকস্থলী পরিষ্কার রাখতেই সাহায্য করে না, এটি পাকস্থলীর ভেতরের খাবারের চলাচলে ও পাকস্থলীর বর্জ্য পদার্থ নিষ্কাশনে সাহায্য করে। তাই হজমপ্রক্রিয়াকে উন্নত করতে নিয়মিতভাবে ইসুবগুল খেতে পারেন। এছাড়া মাঠা বা ঘোলের সাথে ইসুবগুল মিশিয়ে খেতে পারেন ভাত খাওয়ার পরপরই।

  •   পাইলস প্রতিরোধে

প্রাকৃতিকভাবে দ্রবণীয় ও অদ্রবণীয় খাদ্যআঁশে ভরপুর ইসুবগুল যারা পায়ুপথে ফাটল এবং পাইলসের মত বেদনাদায়ক সমস্যায় ভুগছেন তাদের জন্য উত্তম।

এটা শুধু পেট পরিষ্কার করতেই সাহায্য করে না বরং মলকে নরম করতেও সাহায্য করে। অন্ত্রের পানিকে শোষণ করার মাধ্যমে এবং ব্যাথামুক্ত অবস্থায় তা দেহ থেকে বের হতেও সাহায্য করে। এটি প্রদাহের ক্ষত সারাতেও সাহায্য করে। ২ চামচ ইসুবগুল কুসুম গরম পানিতে মিশিয়ে ঘুমাতে যাবার আগে পান করুন।


সতর্কতা
   এটি শুধু সমস্যাগুলোর ঘরোয়া সমাধান। যদি খুব বেশি গুরুতর অবস্থা হয় তাহলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

ইসুবগুল আমাদের দেশে বাজার থেকে শুরু করে সুপারমার্কেটসহ সব জায়গাতেই বেশ সহজলভ্য। তবে কেনার আগে কিছু ব্যাপার অবশ্যই খেয়াল রাখবেন-
    কখনোই খোলা ইসুবগুল কিনবেন না, সেগুলো নষ্ট ও ভেজাল থাকতে পারে। যার ফলে এটি খেয়ে হয়তো ভালো ফলাফল নাও পেতে পারেন।
    বিভিন্ন দোকানে সাধারণ ইসুবগুলে কৃত্রিম স্বাদ ও রঙ যোগ করে বিশেষ কার্যকারিতার কথা বলে তা বিক্রয় করা হয় যা মূলত স্বাস্থ্যের জন্য খুবই খারাপ। তাই সাধারণ ইসুবগুল খাওয়াই সবচেয়ে উত্তম।

Designed & Developed by TechSolutions BD